ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, , ৬ জ্বিলক্বদ ১৪৪২
Reg:C-125478/2015

সিদ্ধ সবজি বেশি স্বাস্থ্যকর ও বেশি পুষ্টিগুণ সম্পন্ন


প্রকাশ: ৭ জুন, ২০২১ ১৫:৫৭ অপরাহ্ন | দেখা হয়েছে ১২৪ বার


সিদ্ধ সবজি বেশি স্বাস্থ্যকর ও বেশি পুষ্টিগুণ সম্পন্ন

লাইফস্টাইল: গবেষণায় বলছে, সবজি সিদ্ধ করা হলে জীবাণুমুক্ত হওয়ার সাথে সাথে তা আরও বেশি স্বাস্থ্যকর পুষ্টিগুণ সম্পন্ন হয়। তবে সিদ্ধ করার সময় সবুজ থাকা অবস্থায় না থাকলে, অতিরিক্ত তাপ সবজির পুষ্টিগুণ নষ্ট করে দেয়।

কিছু সবজি আছে যেগুলো সিদ্ধ করে খেলে তা আরও বেশি উপকারি ও শরীরের ওজন কমাতেও সাহায্য করে। ফুলকপি ও বাঁধাকপি সিদ্ধ করে খাওয়া বেশি স্বাস্থ্যকর। এই পদ্ধতিতে ফুলকপিতে পুষ্টি ও ভিটামিন জমা থাকে। এছাড়াও বাঁধাকপি সিদ্ধ করলে এর ভাপের একটি গন্ধ হয়। এই সিদ্ধ পানি খাবারের সুগন্ধ করার জন্য ব্যবহার করা যায়।

ভুট্টাতে ও গাজরে যথেষ্ট পরিমাণে পুষ্টি পাওয়া যায়। ভুট্টার ভেতরে থাকা 'ভিটামিন বি' স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ উপকারী। এতে কপার, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম জাতীয় এমন অনেক খনিজ উপাদান পাওয়া যায় যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শরীরকে নানা রোগ থেকে দূরে রাখে। অন্যদিকে, সিদ্ধ গাজর 'ভিটামিন এ' চোখের জন্য খুবই ভালো। গাজর ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃন করে।

ব্রকলিতে কেবল ভিটামিন সি, ভিটামিন কে, আয়রন এবং পটাসিয়ামই থাকে না, এতে পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিনও পাওয়া যায়। শরীরের পুষ্টির জন্য সিদ্ধ করে স্যুপ হিসেবে ব্রকলি খেতে পারেন।

এছাড়াও আলু যখন সিদ্ধ করা হয়, তখন ক্যালরি কমে যায়। যারা ওজন কমাতে চান, তারা এটি খেতে পারেন। সিদ্ধ ডিমের সাদা অংশে পাওয়া প্রোটিন স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো। কারণ এটি রক্তে শর্করার পরিমাণ স্থিতিশীল রাখতে সহায়তা করে।

চিংড়ি অন্যতম সেরা সামুদ্রিক খাবার হিসেবে পরিচিত। এতে থাকা বিভিন্ন উপাদান শরীরকে নানা রোগ থেকে দূরে রাখে। এটি সিদ্ধ করে সালাদ বা স্যুপ দিয়ে খেতে পারেন।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, মটরশুঁটি কমপক্ষে ছয় মিনিট সিদ্ধ করা প্রয়োজন। সামান্য পরিমাণ লবণ ও মরিচ মিশিয়ে এটা সিদ্ধ করতে পারেন। এটা ডায়াবেটিস প্রতিরোধের জন্য ভালো। মেথি ও পুঁইশাক সিদ্ধ করলেও বেশি পুষ্টি পাওয়া যায়।

গবেষণায় দেখা গেছে, খাবারে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা সহজে হজম হতে পারে না। তবে যখন খাবারটি সঠিকভাবে সিদ্ধ করা হয় তখন এ উপাদানগুলি শরীরে যায় এবং সহজে হজম হয়। এছাড়াও সিদ্ধ খাবার ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করে, ত্বকের গঠন উন্নত করে, অ্যাসিডিটি কমায়, কিডনিতে পাথর প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে।


   আরও সংবাদ