ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, , ৬ জ্বিলক্বদ ১৪৪২
Reg:C-125478/2015

জ্বালানি তেল রফতানিতে প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত


প্রকাশ: ১০ জুন, ২০২১ ১৬:৩৫ অপরাহ্ন | দেখা হয়েছে ১২৪ বার


জ্বালানি তেল রফতানিতে প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত

অর্থনীতি ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানিতে প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত আছে চলতি বছরের এপ্রিলে দেশটি দৈনিক ৩২ লাখ ৩৬ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করে মার্চে আমদানির পরিমাণ ছিল দৈনিক ২৬ লাখ ১৫ হাজার ব্যারেল সে হিসেবে রফতানি বেড়েছে দৈনিক লাখ ২১ হাজার ব্যারেল মার্কিন সেনসাস ব্যুরো কর্তৃক প্রকাশিত বাণিজ্য নথিতে তথ্য জানানো হয়েছে খবর অয়েলপ্রাইসডটকম

যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের শীর্ষ চতুর্থ অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানিকারক। এপ্রিলে দেশটি এখন পর্যন্ত এ বছরের সর্বোচ্চ অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করেছে। জানুয়ারিতেও জ্বালানি পণ্যটির রফতানি বড় পরিসরে বেড়েছিল। এ সময় রফতানির পরিমাণ দৈনিক ৩০ লাখ থেকে ৩০ লাখ ৭৫ হাজার ব্যারেলে উন্নীত হয়। জানুয়ারিতে রফতানিযোগ্য প্রতি ব্যরেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম ছিল ৪৯ ডলার ১১ সেন্ট। তবে এপ্রিলে পণ্যটির দাম বেড়ে ব্যারেলপ্রতি ৫৮ ডলার ৮৭ সেন্টে পৌঁছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সর্বাধিক জ্বালানি তেল উত্তোলিত হয় টেক্সাস রাজ্যে। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে সৃষ্ট শৈত্যঝড়ের প্রভাবে টেক্সাসসহ দেশজুড়ে জ্বালানি তেল উত্তোলন কমে যায়। এ সময় উত্তোলন ৪০ শতাংশ কমেছিল বলে জানায় মার্কিন সেনসাস ব্যুরো। ফলে জানুয়ারিতে রফতানি বাড়লেও ফেব্রুয়ারি ও মার্চে রফতানি কমে দৈনিক প্রায় ২৬ লাখ ব্যারেলে নেমে যায়।

মাসের শেষ দিকে এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (ইআইএ) এপ্রিলের রফতানি-সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করবে। তবে বছরের প্রথম প্রান্তিকের হিসাব দিয়েছে ইআইএ। এতে বলা হয়, জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্র প্রতিদিন ৩১ লাখ ৬৫ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করেছে। ফেব্রুয়ারি ও মার্চে রফতানির পরিমাণ ছিল ২৭ লাখ টন। সেনসাস ব্যুরোর তুলনায় ইআইএর হিসাবে রফতানির পরিমাণ বেশি দেখা গেছে।

জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের লুজিয়ানা অফসোর অয়েল পোর্ট দিয়ে গত বছরের ডিসেম্বরের তুলনায় দ্বিগুণ অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করা হয়। এশিয়ার পরিশোধকদের চাহিদা উচ্চহারে বৃদ্ধি পাওয়ায় রফতানিতে এমন প্রবৃদ্ধি এসেছে।

ইআইএর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, গত বছর যুক্তরাষ্ট্র দৈনিক ৩১ লাখ ৮০ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করেছিল। তবে চলতি বছর রফতানির পরিমাণ এর চেয়েও বড় পরিসরে বাড়বে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। বিশ্বের প্রধান অর্থনীতিগুলো করোনার প্রভাব কাটিয়ে প্রবৃদ্ধির ধারা ফিরতে শুরু করেছে। এতে বাড়ছে জ্বালানি তেলের চাহিদা। এ বিষয়গুলোই রফতানি বৃদ্ধিতে প্রভাবকের ভূমিকা রেখেছে।


   আরও সংবাদ