ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, , ১৩ সফর ১৪৪৩
Reg:C-125478/2015

‘আত্মহত্যাচেষ্টা’ বাড়ির মালিকের ছেলের


প্রকাশ: ১ অগাস্ট, ২০২১ ১৫:২২ অপরাহ্ন | দেখা হয়েছে ৩৭০ বার


‘আত্মহত্যাচেষ্টা’ বাড়ির মালিকের ছেলের

পরিবার বিয়েতে রাজি না হওয়ায় রাজধানীর দক্ষিণখানে এক যুবকআত্মহত্যার চেষ্টাকরেছেনজানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর সঙ্গে ওই যুবকের প্রেমের সম্পর্ক। কিন্তু পরিবার ওই তরুণীর সঙ্গে বিয়ে দিতে রাজি হচ্ছিল না। এজন্য তিনি শনিবার মধ্যরাতে বাড়ির পাঁচতলা কার্নিশে ওঠেন লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করার জন্য। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করেন। দক্ষিণখানের কাজীবাড়ি রোডে তিন ঘণ্টার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান শেষে তাকে নামিয়েে আনতে সক্ষম হন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। সময় শতশত উৎসুক জনতা ওই বাড়ির সামনে ভিড় করেন। উত্তরা ফায়ার স্টেশনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সৈয়দ মনিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, ওই যুবক একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েন। দক্ষিণখানের ছয় তলা ওই বাড়ির মালিক তার বাবা। ভবনের চতুর্থ তলায় তারা থাকেনতিনি আরও বলেন, ওই বাড়ির দ্বিতীয় তলায় যারা ভাড়া থাকেন, তাদের এক মেয়ে পড়েন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। তার সঙ্গে বাড়ির মালিকের ছেলের প্রেমের সম্পর্ক চলছিল বেশ কিছুদিন ধরেমনিরুল ইসলাম বলেন, ছেলে বিয়ের জন্য পরিবারকে চাপ দিচ্ছিল, কিন্তু পরিবার রাজি হচ্ছিল না। পরে ছেলে মাঝরাতে পাঁচতলা কার্নিশে ওঠে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করার জন্য। আশপাশের লোকজন তাকে দেখে ৯৯৯ ফোন দেয়খবর পেয়ে ওই বাড়িতে ছুটে যান ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা। তারা নানাভাবে ওই যুবককে বোঝানোর চেষ্টা করেন। পরে ওই তরুণী এবং তার মাকেও ডেকে আনা হয়। তারাও ছেলেটিকে নেমে আসতে অনুরোধ করেন। কথা বলে সময়ক্ষেপণ করার ফাঁকে ফাঁকে আমরা পাঁচতলার জানালার গ্রিল কাটি এবং রেসকিউ রোপ দিয়ে দ্রুত তাকে বেঁধে ফেলি যাতে লাফিয়ে পড়তে না পারে, পরে তাকে নামিয়ে আনা হয়।ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা সৈয়দ মনিরুল ইসলাম জানান, বিয়ের জন্য আত্মহত্যার চেষ্টা করা ওই যুবককে তারা পরিবারের কাছে বুঝিয়েদিয়েছেনতবে এই কাণ্ডের পর তার পরিবার এখন বিয়েতে রাজি কি না, সে বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারেননি


   আরও সংবাদ