ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, , ৫ জ্বিলহজ্ব ১৪৪৩
Reg:C-125478/2015

বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও শ্রমিক সংকটে দিশেহারা কৃষক  

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি


প্রকাশ: ১০ মে, ২০২২ ১৪:২১ অপরাহ্ন | দেখা হয়েছে ১৮২ বার


 বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও শ্রমিক সংকটে দিশেহারা কৃষক  

 

 

ছাইদুল ইসলাম, ধামইরহাট  নওগাঁ প্রতিনিধিঃ

 

ঝড় বৃষ্টির কারণে বরেন্দ্র অঞ্চলের বোরো ধান ঘরে তুলতে গুনতে হচ্ছে দিগুন পরিমাণের টাকা তারপরেও পাওয়া যাচ্ছেনা শ্রমিক যদিও পাওয়া যাচ্ছে তো বিঘা ১০ থেকে ১২ মন ধান দিতে হচ্ছে তাতে কৃষক পড়েছে বিপাকে ধামইরহাট চকযদু গ্রামের কৃষক আঃকুদ্দুছ (৫৫) বলেন আমার  ৭৩.৫ শতাংশ (১ বিঘা ১০ কাঠা) জমির ধান ঝড় বৃষ্টির কারনে পড়ে যাওয়াতে কোন শ্রমিক ধান কেটে দিতে চাচ্ছেনা যদিও কেটে দিতে চাচ্ছেতো (১৬) মন ধান দিতে হবে আমার সকল খরচ হিসাব করে দেখা যাচ্ছে প্রচুর পরিমাণে লোকসান গুনতে হচ্ছে মইশড় গ্রামের আবদুল আলিম (৫০) বলেন  আমার প্রতি বিঘা তে ১০থেকে ১২ হাজার টাকা  খরচ হয়েছে বিনিময়ে আমরা কোন প্রকার লাভ পাচ্ছিনা  যদিও লাভ হতো কিন্তুু কীটনাশক প্রয়োগের প্রচুর পরিমাণ ব্যায় হয়েছে  যদি ধানের মোড়কর দমনে বিকল্প কোন ব্যাবস্থা থাকতো  তাহলে আমাদের মতো কৃষকদের কিছুটা উপকার হতো যাদের নিচু জমি তারা দিশেহারা হয়ে পড়েছে, কারন জমিতে পানি জমে থাকা এবং ঝড়ে যে ধান শুয়ে পড়েছে সে ধানের পুষ্ট দানা না হওয়ায় লোকসান গুনতে হচ্ছে কৃষকদের। ভাতগ্রাম (খাপুরা) গ্রামের আসলাম হোসেন (৫০) বলেন বাংলাদেশের কৃষি গবেষনায় যদি কীটনাশক ও রাসায়নিক সারের কোন বিকল্প ব্যাবস্থা থাকতো তাহলে আমাদের মতো কৃষক বাঁচত এবং দেশের কৃষি ও রাজস্ব খাতের আয়ও বারত আবার ধান কাটা শ্রমিকের তিব্র সংকট হওয়ায় নুয়ে পরা ধান ঘাড়ে তুলতে আসংখা প্রকাশ করেছেন কৃষকেরা। জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী চলতি মৌসুমে নওগাঁয় -১ লাখ ৮৯ হাজার ৪৯০ হেক্টর বোরোধান চাষ করা হয়েছে কাল বৈশাখি ঝড়ে ও বৃষ্টির কারনে ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ ধান নুয়ে পরেছে মাটিতে বলে জানাগেছে।


   আরও সংবাদ